ঢাকা,
মেনু |||

আরো ২১ মৃত্যু, শনাক্ত ২,১৯৯

আকাশ বাংলা ডেস্ক :

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণে আরো ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন শনাক্ত হয়েছেন দুই হাজার ১৯৯ জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে তিন হাজার ১৩২ জনের। আর সব মিলিয়ে শনাক্ত হয়েছেন দুই লাখ ৩৯ হাজার ৮৬০ জন।

 

 

আজ শনিবার (১ আগস্ট) করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সরকারি বুলেটিনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। বুলেটিন প্রকাশে অংশ নেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

ডা. নাসিমা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণে দেশে আরো ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এঁরা ১৬ জন পুরুষ এবং পাঁচজন নারী। এঁদের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ১ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৪ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৮ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ৫ জন এবং ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন । এ নিয়ে দেশে করোনায় এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে তিন হাজার ১৩২ জনের।

 

 

 

এ পর্যন্ত যাঁরা মৃত্যুবরণ করেছেন, তাঁদের মধ্যে পুরুষ দুই হাজার ৪৬২ জন এবং নারী ৬৭০ জন। আর বয়স বিবেচনায় এ পর্যন্ত যাঁরা মৃত্যুবরণ করেছেন তাঁদের বয়স ০ থেকে ১০ বছরের মধ্যে ১৮ জন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ৩২ জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ৮৭ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ২০৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৪৩৮ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৯০১ জন এবং ষাটোর্ধ্ব এক হাজার ৪৫১ জন।

 

 

 

জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় যে ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে তাঁরা ঢাকা বিভাগের ৯ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৩ জন, খুলনা বিভাগের ৫ জন, রাজশাহী বিভাগের ১ জন, বরিশাল বিভাগের ২ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের ১ জন। হাসপাতালে মারা গেছেন ২০ জন এবং বাসায় একজন।

 

 

বিভাগ অনুযায়ী এ পর্যন্ত যাঁরা মৃত্যুবরণ করেছেন তাঁরা হলেন- ঢাকা বিভাগের এক হাজার ৪৯৭ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৭৬২ জন, রাজশাহী বিভাগের ১৮৬ জন, খুলনা বিভাগের ২২৬ জন, বরিশাল বিভাগের ১২৪ জন, সিলেট বিভাগের ১৫১ জন, রংপুর বিভাগের ১১৮ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের ৬৮ জন।

 

 

এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ১১৭ জন। এ নিয়ে দেশে করোনা সংক্রমণ থেকে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৩৬ হাজার ২৫৩ জন।

 

 

ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে আট হাজার ৬৬৯টি। একই সময় আগের নমুনাসহ পরীক্ষা হয়েছে আট হাজার ৮০২টি। এর মধ্যে করোনা রোগী হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে দুই হাজার ১৯৯ জনকে। এ নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন দুই লাখ ৩৯ হাজার ৮৬০ জন। আর এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১১ লাখ ৮৫ হাজার ৬১১টি।

 

 

আইসোলেশন প্রসঙ্গে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে আরো ৭৭১ জনকে। একই সময় আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৫০০ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে গেছেন ৫১ হাজার ৪৮১ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৩২ হাজার ৯০০ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৮ হাজার ৫৮১ জন।

 

 

কোয়ারেন্টিন প্রসঙ্গেও তথ্য দেওয়া হয় বুলেটিনে। বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিনে গেছেন এক হাজার ৬৫৫ জন। এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে গেছেন মোট চার লাখ ৩৮ হাজার ১৪১ জন। ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড় পেয়েছেন দুই হাজার ২০৭ জন। এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়া পেয়েছেন তিন লাখ ৮১ হাজার ৮৬৯ জন। ছাড়ের পর বর্তমানে হোম এবং প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছেন ৫৬ হাজার ২৭২ জন।

 

 

সারা দেশের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য প্রস্তুত ৬২৯টি প্রতিষ্ঠান। এর মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে ৩১ হাজার ৯৯১ জনকে সেবা প্রদান যায় বলে জানানো হয় বুলেটিনে।

 

 

বুলেটিনে আরো জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য বাতায়ন এবং আইইডিসিআরের হটলাইনে কল এসেছে ৬১ হাজার ৭১২টি। এ নিয়ে এ পর্যন্ত মোট ফোনকল এসেছে এক কোটি ৭৯ লাখ ৯২ হাজার ৩৫১টি। এসব কলে সবাইকে স্বাস্থ্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

 

 

বুলেটিনে জানানো হয়, গত ৩১ জুলাই থেকে আইইডিসিআরের শুধু ১০৬৫৫ হটলাইন নম্বরটি ব্যবহৃত হচ্ছে এবং অন্য নম্বরগুলো বন্ধ রয়েছে।

 

 

টেলিমেডিসিন সেবায় প্রতিদিন ৩৫ জন চিকিৎসক এবং ১০ জন স্বাস্থ্যতথ্য কর্মকর্তা দুই শিফটে মোট ৯০ জন টেলিমেডিসিনে করোনাসংক্রান্ত স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যাচ্ছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় তাঁদের স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণ করেছেন এক হাজার ৬২৮ জন। এ পর্যন্ত এক লাখ ৫৩ হাজার ৭৬৭ জন এই সেবা গ্রহণ করেছেন বলে জানানো হয় বুলেটিনে।


admin

প্রধান ‍উপদেষ্টা: মো: ‍আবু তালেব মিয়া
প্রকাশক: মো: ‍ইনাম মাহমুদ
সম্পাদক : রিয়াজ পাটওয়ারী
যুগ্ম সম্পাদক: খান আব্বাস
প্রধান সম্পাদক: মো: কামরুল ইসলাম
সহ সম্পাদক: মো: মেহেদী হাসান
নির্বাহী সম্পাদক: শাহাদাত তালুকদার
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: এম এইচ প্রিন্স
Desing & Developed BY Engineer BD Network