ঢাকা,
মেনু |||

চারটি শূন্য আসনে আ.লীগের মনোনয়ন পেতে জোর তৎপরতা

অনলাইন ডেস্ক :
শূন্য হওয়া আসনগুলোতে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে উপনির্বাচনের কোনো লক্ষণ দেখা না গেলেও জোর তৎপরতা শুরু করে দিয়েছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা।

আওয়ামী লীগের প্রবীণ রাজনীতিবিদের মৃত্যুতে জাতীয় সংসদের চারটি আসন এখন শূন্য। এসব আসনে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে উপনির্বাচনের কোনো লক্ষণ দেখা না গেলেও তৎপরতা শুরু করে দিয়েছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকায় আছেন ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদ ও প্রয়াতদের পরিবারের সদস্যরাও।

 

 

ঢাকার দক্ষিণখান, উত্তরখান, খিলক্ষেত, তুরাগ ও উত্তরা এলাকা নিয়ে গঠিত জাতীয় সংসদের ঢাকা-১৮ আসন। এই আসনে তিনবারের সংসদ ছিলেন সদস্য সাহারা খাতুন। তাঁর মৃত্যুর মাস না পেরোতেই নির্বাচনি এলাকাটি ছেয়ে গেছে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ব্যানার ফেস্টুনে। তালিকায় আছেন রাজনীতিবিদ,ব্যবসায়ী-পরিবারের সদস্য ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা।

 

ঢাকা-১৮ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ও যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজমা আকতার বলেন, ‘উত্তরার রাজনীতি এবং সকল নির্বাচনের সঙ্গে আমি ওতপ্রোতভাবে জড়িত ছিলাম। একজন কর্মীর স্বপ্নই থাকে যখন যে পরিপক্ক হবে তখন দলের কাছে মনোনয়ন চাইবে।’

একই আসন থেকে আওয়ামী লীগের আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী সাহারা খাতুনের ভাগ্নে এস এস হোসাইন সারোয়ার বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই নেতাকর্মীদের সঙ্গে থেকে দায়িত্ব নিয়ে কাজ করেছি। খালা যেভাবে তার নির্বাচনি এলাকার জনগণকে আপন নিয়েছিলেন ঠিক একইভাবে তার আদর্শ নিয়ে জনগণের কল্যাণে কাজ করতে চাই।’

 

এদিকে, ঢাকা-৫ আসনের চারবারের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান মোল্লা। মৃত্যুর পর তার নির্বাচনি এলাকায় জোর তৎপরতা শুরু করেছেন বেশ ক’জন। প্রয়াত হাবিবুর রহমানের বড় ছেলে সজল মোল্লার দাবি, এলাকার মানুষের এখনো আস্থা রয়েছে মোল্লা পরিবারের ওপর।

 

 

ঢাকা-৫ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী শহীদ সুলতানা কামালের ভাতিজি নেহরীন মোস্তফা দিশি বলেন, ‘ঢাকা-৫ আসনে আমাদের পরিবার যে অবদান রেখেছে, সে অবদানকে আমি অব্যাহত রাখতে চাই।’

 

 

অন্যদিকে, সিরাজগঞ্জ-১ এর সংসদ সদস্য ছিলেন মোহাম্মদ নাসিম। কোনোবারই এ আসন থেকে নির্বাচনে হারেননি তিনি। ২০০৮ মামলা জটিলতায় নির্বাচন করতে না পারায় তার ছেলে নির্বাচন করেন।

 

 

মনোনয়ন প্রত্যাশী মোহাম্মদ নাসিমের বড় ছেলে তানভির শাকিল জয় বলেন, ‘আমার দাদা ও বাবা আমাদের অঞ্চলের মানুষকে নিয়ে যেভাবে উন্নয়নের পথে এগিয়েছেন একইভাবে আমাকে যদি সংসদ সদস্য হিসেবে মনোনয়ন দেন বা আমাকে যোগ্য মনে করেন তাহলে আমার ওপর এলাকার মানুষের প্রত্যাশা অনেক বেশি থাকবে।’

 

 

আসনগুলোতে উপনির্বাচন করার বাধ্যবাধকতার ৯০ দিন ঘনিয়ে এলেও করোনাভাইরাসের দুর্যোগে আরো সময় নিতে চায় নির্বাচন কমিশন।


admin

প্রধান ‍উপদেষ্টা: মো: ‍আবু তালেব মিয়া
প্রকাশক: মো: ‍ইনাম মাহমুদ
সম্পাদক : রিয়াজ পাটওয়ারী
যুগ্ম সম্পাদক: খান আব্বাস
প্রধান সম্পাদক: মো: কামরুল ইসলাম
সহ সম্পাদক: মো: মেহেদী হাসান
নির্বাহী সম্পাদক: শাহাদাত তালুকদার
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: এম এইচ প্রিন্স
Desing & Developed BY Engineer BD Network