ঢাকা,
মেনু |||

নিষিদ্ধের প্রতিবাদে কমিটি দিয়েছে ছাত্রদল, ব্যবস্থা নেবে বুয়েট প্রশাসন

 

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক:

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ক্যাম্পাসে সব রাজনৈতিক দলের ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করেছিল প্রশাসন। আবরার ফাহাদ হত্যার পর শিক্ষার্থীদের দীর্ঘদিনের আন্দোলনের পর এ দাবি মেনে বাস্তবায়ন করা হয়। এ সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময়ও এর বিরোধিতা করেছিল বিএনপির ছাত্রসংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। শুক্রবার (২৪ জুলাই) বুয়েট ক্যাম্পাসে পাঁচ সদস্যের নতুন আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করে সংগঠনটি।ছাত্রদল জানায়, ছাত্ররাজনীতি ‘নিষিদ্ধের প্রতিবাদ’ হিসাবেই এই কমিটি দেওয়া হয়েছে।

সাংগঠনিক কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার কথা জানান ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন।
তবে বুয়েট প্রশাসন জানিয়েছে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের তোয়াক্কা না করে আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করায় তাদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলাভঙ্গ করার দায়ে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শনিবার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ পরিদফতরের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. মিজানুর রহমানের সই করা গণমাধ্যমে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী ছাত্রকল্যাণ পরিদফতরের অনুমোদিত ক্লাব ছাড়া ছাত্রদের অন্য যেকোনও সংগঠনের কার্যক্রম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নিষিদ্ধ। উল্লেখ্য যে আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের পরবর্তী সময়ে গত বছরের ১১ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন উপাচার্য নিজ ক্ষমতাবলে বুয়েটের সকল রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠনের কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন।

এমতাবস্থায়, শুক্রবার রাতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বুয়েট ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নজরে এসেছে। বিশ্ববিদ্যালয় বিদ্যমান আইন অনুসারে রাজনৈতিক দলের ছাত্রসংগঠনের কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। যথাযথ নিয়ম অনুসরণ করে নিয়ম শৃঙ্খলা পরিপন্থী কার্যকলাপে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তবে বিশ্ববিদ্যালয়ে কমিটির কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার কথা জানান ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, বুয়েটে আবরার মারা গেছে মূলত ছাত্রলীগ এবং প্রশাসনের কারণে। এর সঙ্গে আমাদের কোনও সম্পৃক্ততা নেই। যখন ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করা হয়,তখন আমরা এর প্রতিবাদ জানিয়েছিলাম। এখন সেই প্রতিবাদ হিসেবেই আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করলাম। আমাদের কমিটির কার্যক্রম চলমান থাকবে।


akash bangla

প্রধান ‍উপদেষ্টা: মো: ‍আবু তালেব মিয়া
প্রকাশক: মো: ‍ইনাম মাহমুদ
সম্পাদক : রিয়াজ পাটওয়ারী
যুগ্ম সম্পাদক: খান আব্বাস
প্রধান সম্পাদক: মো: কামরুল ইসলাম
সহ সম্পাদক: মো: মেহেদী হাসান
নির্বাহী সম্পাদক: শাহাদাত তালুকদার
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: এম এইচ প্রিন্স
Desing & Developed BY Engineer BD Network